Main Menu

বেইজিংয়ে 'এশিয়া ইউথ কাউন্সিল-২০১৮'

বেইজিংয়ে ‘এশিয়া ইউথ কাউন্সিল-২০১৮’

এশিয়া ও আফ্রিকার যুবসমাজকে একটি টেকসই অর্থনীতি, উন্নত, শক্তিশালী ও শান্তিপূর্ণ রাষ্ট্রব্যবস্থা গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন ‘এশিয়া ইউথ কাউন্সিল’র (এওয়াইসি) নির্বাহী সম্পাদক মালয়েশিয়ার নাগরিক আজিজ উদ্দিন আহমেদ।

শুক্রবার চীনের বেইজিংয়ে অনুষ্ঠিত ‘এশিয়া ইউথ কাউন্সিল-২০১৮’ তৃতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান।

আজিজ উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, যুবসমাজ হচ্ছে একটি দেশের মেরুদণ্ড। যুবসমাজ হচ্ছে দেশের ভবিষ্যৎ। তারা দেশ গড়ার কাড়িগর। তাই তাদের যত্ন নিতে হবে। তারা যেন একাডেমিক পড়ালেখা শেষ করার পর দেশ ও নিজের উন্নতিসাধন করতে পারে সে জন্য তাদের মোডিফাই করা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, এশিয়া ও আফ্রিকার যুবসমাজের উদ্দেশে আমরা বলতে চাই আপনাদের ভেতরের সাহসী মানুষকে জাগিয়ে তোলেন, আত্মপ্রত্যয়ী ও আত্মনির্ভরশীল হন, আপনি আলোকিত মানুষ হলে আপনার দেশ ও দশের মঙ্গল হবে। তাই আমাদের হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করে যেতে হবে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত বাংলাদেশের নাগরিক এশিয়া ইউথ কাউন্সিলের ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. এনামুল হক।

তিনি বলেন, আমরা স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য এই কর্মসূচির আয়োজন করে থাকি। আমরা চাই কোনো শিক্ষার্থী যেন বেকারত্বের কারণে আত্মহত্যা ও মাদকের মতো মরণনেশার দিকে ঝুঁকে না যায়। আমরা তাদের সুস্থ, পরিচ্ছন্ন ও পরিকল্পিত জীবন চাই। তারা কখনো হতাশায় ভোগে।

এনামুল হক বলেন, বাংলাদেশসহ এশিয়া ও আফ্রিকার যুবসমাজের উদ্দেশে আমি বলতে চাই, আপনারা নিজে নিজে সঙ্গে শপথ করুন, আলোকিত মানুষ হব ও দেশ গড়ব। নিজেকে বদলালে দেশ বদলে যাবে। এটা যেন হয় আপনাদের জাতীয় শপথ।

এশিয়া ও আফ্রিকার দেশসমূহের সরকারের উদ্দেশে তিনি বলে, যুবসমাজ প্রত্যেক দেশের জনসংখ্যার বিশাল একটি অংশ। তাই প্রত্যেক দেশের সরকারের উচিত তাদের প্রতি যত্নশীল হওয়া এবং তাদের সুন্দর ভবিষ্যৎ বিনির্মাণের জন্য সহযোগিতা করা।

বাংলাদেশের যুবসমাজ ও সরকারের উদ্দেশে এনামুল হক বলেন, বাংলাদেশ থেকে চীন খুব বেশি দূরে নয়, খুব কম সময়ের মধ্যে বাংলাদেশের যুবসমাজ ব্যাপক সাফল্য লাভ করেছে। তাদের ইচ্ছাশক্তি দিয়ে তারা প্রতিনিয়ত উন্নতির চরম উচ্চতায় দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। চীন হতে পারে বাংলাদেশর জন্য উদাহরণ।

সম্মেলনে ১৮টি দেশের মোট ১ হাজার প্রতিনিধি অংশ নিয়েছে। অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, চীন, কলম্বিয়া, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়ার, কোরিয়া, নেপাল, মঙ্গোলিয়া, মিয়ানমার, পাকিস্তান, ফিলিপাইন, রাশিয়া, সিঙ্গাপুর, শ্রীলঙ্কা ভিয়েতনামসহ ১৭টি দেশ।

গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই সম্মেলন চলবে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।






আপনার মতামত দিন।

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*